বাংলাদেশ: সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

আনসারুল্লাহর ৪ সদস্য ‘খেলাফত রাষ্ট্র’ প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিল

সাইবার টহলের মাধ্যমে গত ছয় মাস ধরে কয়েকজন যুবককে নজরদারি করছিল পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট (এটিইউ)। শুরুতে তাদের কার্যক্রম ধীর হলেও ক্রমেই তা বাড়তে থাকে। টানা ছয় মাস নজরদারি করার পর আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) চার সদস্যকে আটক করে এটিইউ।

বুধবার (১১ আগস্ট) ভোর ৪টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত রায়েরবাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটক এবিটি সদস্যরা হলেন : রায়হান হোসেন ওরফে সাব্বির হোসেন রাইহান ওরফে আল রাব্বি, তানভীর হোসেন, আমিনুল ইসলাম ও সাগর ইসলাম ওরফে ইউসুফ বিন আব্দুর রাকিব। চারজন একই এলাকার বাসিন্দা। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৪টি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল সেট, ২টি ছােরা এবং ২টি উগ্রবাদী বই, ৫টি বুকলেট জব্দ করা হয়।

বুধবার (১১ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর বারিধারায় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান এটিইউর পুলিশ সুপার (মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস) মোহাম্মদ আসলাম খান।

তিনি বলেন, এই গ্রুপের সদস্যরা ‘গাজওয়াতুল হিন্দ’ প্রতিষ্ঠার জন্য অনলাইনে উগ্রবাদী বিভিন্ন পোস্ট প্রচার করে আসছিল। তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে রাষ্ট্র ও সরকারবিরোধী বিভিন্ন পোস্ট শেয়ার দিত।

পুলিশ সুপার আসলাম খান বলেন, বড় কোনো নাশকতা করার মতো তাদের সক্ষমতা নেই। পরিকল্পনা বাস্তবায়নের আগেই আমরা তাদের আটক করেছি। তাদের সঙ্গে আর কার যোগাযোগ ছিল তা জানতে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আসলাম খান বলেন, আটক হওয়া এবিটি সদস্যরা আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য। তারা সবাই একই এলাকায় বসবাস করতেন। সেই সুবাদে তারা নিয়মিত দেখা-সাক্ষাৎ ও অনলাইনে যোগাযোগ করতেন। গত ৬ মাস ধরে তাদের ওপর নজরদারি চালিয়ে আটক করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *