বাংলাদেশ: শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১১ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১১ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১১:৩০ পিএম

আন্তর্জাতিক অস্ত্র ব্যবসায়ী ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

বিপুল পরিমাণ বিদেশী অস্ত্রসহ বুধবার গভীররাতে ঢাকার মিরপুর দারুস সালাম গাবতলী এলাকা থেকে আন্তর্জাতিক অস্ত্র ব্যবসায়ী ছাত্রলীগ নেতা আকুল হোসাইন ও তার পাঁচ সহযোগীকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। গ্রেপ্তারের সময তার নিকট থেকে ৮টি বিদেশী পিস্তল, ১৬টি ম্যাগাজিন ও ৮ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ জানায়, বেনাপোল থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশী অস্ত্রের একটি চালান পাচার হয়ে ঢাকায় যাচ্ছে। এমন গোপন সংবাদ পেয়ে ডিবির একটি বিশেষ টিম ঢাকার মিরপুর দারুস সালাম গাবতলী এলাকা থেকে ঢাকা- মে: ঘ-২৭-৩৫৮০ নাম্বারের একটি প্রাইভেটকার আটক করে। এর পর প্রাইভেটকার থেকে যশোরের শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকুল হোসাইনসহ ৫ জনের দেহ তল্লাশী করে ৮টি পিস্তল, ১৬টি ম্যাগজিন ও ৮ রাউন্ড গুলিসহ তাদের আটক করে ঢাকায় ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-আকুল হোসেন (৩৫) বেনাপোলে ঘিবা গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে, মো. ফজলুর রহমান (৩০) বেনাপোলের ভবেরবেড় গ্রামের আজিবরের ছেলে। সিএন্ডএফ এজেন্ট ব্যবসায়ী ফারুক হোসেন মিলন (২৮) বেনাপোলের বোয়ালিয়া গ্রামের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে, মো. ইলিয়াস হোসেন (৩৪) যশোর শহরের আমির হোসেনের ছেলে ও আজিম উদ্দিন আজিম (২৭)।

গ্রেপ্তার হওয়া আকুল হোসেন যশোরের শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। তার বিরুদ্ধ হত্যা, অস্ত্র, চাঁদাবাজি, সোনা ছিনতাই, মারামারিসহ কাস্টমস কর্মকর্তাদের ওপর হামলা সংক্রান্ত মোট ৮টি মামলা রয়েছে বেনাপোল পোর্ট থানায়।

আটক ফজলুর রহমানের পিতা আজিবর রহমান জানান, ঢাকা ডিবি পুলিশ আমার ছেলে ও আকুল হোসাইনসহ মোট ৫ জনকে ৮টি পিস্তলসহ আটক করেছে। আমার ছেলেকে বাড়ি থেকে সিএন্ডএফ এজেন্ট ব্যবসায়ী আজিম উদ্দিন ও মিলন হোসেন ডেকে নিয়ে যায় ঢাকায় যাওয়ার জন্য।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ডিসি মোশাররফ হোসেন গনমাধ্যমকে জানান, আকুল হোসাইন দীর্ঘদিন ধরে অস্ত্র ব্যবসা, মাদক ব্যবসা ও সোনা ছিনতাই কাজে জড়িত। সে ঘিবা সীমান্ত দিয়ে একটি আন্তর্জাতিক অস্ত্র চোরাকারবারী দলের মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ অত্যাধুনিক অস্ত্র পাচার করে এনে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে আসছিল বলে আমারা জানতে পারি।

তিনি আরও বলেন, এই চক্রটির প্রধান আকুল হোসেন ২০১৪ সাল থেকে দুই শতাধিক অস্ত্র নিজে বিক্রি করেছে। অস্ত্র চোরাচালানসহ চক্রের সদস্যরা তক্ষক প্রতারণা, সীমান্ত পিলার, সাপের বিষ, গোল্ড স্মাগলিং, প্রত্নতাত্ত্বিক মূর্তি, ইয়াবা, আইস মাদক চোরাচালানে জড়িত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *