বাংলাদেশ: রবিবার ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: রবিবার ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

কিডনি পরিষ্কার করুন ধনেপাতায়

ধনিয়া বা ধনেপাতা একটি বহু উৎপাদিও ও ব্যাপক পরিচিত পাতাযুক্ত সবজি। এর পুষ্টিগুনের কারনে একে আর্য়ুবেদ শাস্ত্রেও বিশেষ অবস্থান দেয়া হয়। ধনেপাতা খালি খাওয়া, তরকারীতে খাওয়া, ধনেপাতার জুস কিংবা গোটা ধনে খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে অনেক বেশি উপকারি বিশেষ করে কিডনীর জন্য।

ধনে পাতার একাধিক স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে। ধনিয়া খাদ্যতালিকাগত ফাইবার, ম্যাঙ্গানিজ, আয়রন এবং ম্যাগনেসিয়ামের সমৃদ্ধ উৎস। ধনিয়া ভিটামিন কে, ভিটামিন সি এবং প্রোটিনেরও অনেক বড় একটি বড় উৎস।

এছাড়াও, এগুলিতে অল্প পরিমাণে ফসফরাস, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, ক্যারোটিন এবং নিয়াসিন থাকে। ধনিয়া পাতার এই উপকারী গুণগুলি রক্তে শর্করার মাত্রা উন্নত করতে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো, হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতি, হজমের উন্নতি, কিডনির কার্যকারিতা উন্নত করতে এবং আরও অনেক কিছুতে সহায়তা করে।

কিডনির অন্যতম প্রধান কাজ হল প্রস্রাবের মাধ্যমে শরীর থেকে বর্জ্য পদার্থ, টক্সিন এবং অতিরিক্ত তরল বের করা। আমাদের কিডনিকে ডিটক্সিফাই করা খুবই জরুরি কারণ এটি রক্তকে বিশুদ্ধ করতেও সাহায্য করে। যেভাবে আমরা জল পরিশোধকের ফিল্টারটি পরিষ্কার করি, একইভাবে, স্বাস্থ্য সমস্যা এড়াতে ‘প্রাকৃতিক ফিল্টার’ কিডনিও পরিষ্কার এবং ডিটক্সিফাই করা খুবই অপরিহার্য। আমরা যদি আমাদের কিডনি পরিষ্কার এবং সুস্থ রাখতে ব্যর্থ হই, তাহলে এটি তার পরিশোধন প্রক্রিয়াকে ব্যাহত করতে পারে যা মূত্রনালীর ব্যাধি, দীর্ঘস্থায়ী পেটে ব্যথা, জ্বর, বমি বমি ভাব এবং বমির মতো স্বাস্থ্য জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে।এক্ষেত্রে কিডনি পরিষ্কার রাখায় ধনেপাতা কিন্তু অনেক গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে।

ধনিয়ার ডিটক্সিফাই গুনের কারনে এটি কিডনি পরিষ্কারে অনেক বেশি সহায়তা কতে। ধনিয়া বীজ মূত্রনালীর সংক্রমণের চিকিৎসার জন্য ও কার্যকর কারণ তারা কিডনির পরিস্রাবণের হারকে উন্নত করে দ্রুত প্রস্রাব তৈরি করতে সক্ষম করে। এটি শরীরে পানির ধারণক্ষমতা কমিয়ে দেয় এবং এটি টক্সিন এবং জীবাণু বের করে দেয়। এটি সমগ্র মূত্রতন্ত্র পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে। ধনিয়া ও জিরার সম্বনয়ে ডিটক্স ওয়াটার তৈরি করে নিয়মিত পান করলে কিডনি নিয়ে আর খুব বেশি কোনো চিন্তাই থাকবে না এবং সামগ্রিক ভাবেই রিফ্রেশ লাগবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *