বাংলাদেশ: সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

চালু হলো গণপরিবহন, স্বাস্থবিধি নিয়ে দুশ্চিন্তা

আজ ১১-ই আগস্ট থেকে লকডাউন শিথিল করে সরকারি-বেসরকারি সব অফিস, ব্যাংক থেকে শুরু করে গণপরিবহন, শপিং মল, দোকানপাট খুলে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন সরকার। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে রবিবার বিকেলে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে বলা হয়েছে, ওই দিন থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সরকারি, বেসরকারি সব ধরনের অফিস ও ব্যাংক খোলা থাকবে। শপিংমল, বাজার ও অন্যান্য দোকানপাট সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। বাস, ট্রেন, লঞ্চসহ সকল গনপরিবহন চলবে আসন সংখ্যার সমান যাত্রী নিয়ে।

তবে লকডাউন শেষে কেমন হবে পরিস্থিতি, গণপরিবহন স্বাস্থবিধি নিয়ে চিন্তিত সাধারণ জনগণ। প্রতি গণপরিবহনের জন্য সরকার স্বাস্থবিধি নির্ধারণ করেছেন তবে লকডাউনের আগে দেখা গিয়েছিল বেশিরভাগ গণপরিবহন এ বিধিনিষেধ অমান্য করেছে। করোনা স্বাস্থ্যবিধি তো মানেনি উল্টো সারাদেশে চলেছিল ভাড়া নৈরাজ্য। ৬০ শতাংশ অতিরিক্ত ভাড়ার পরিবর্তে কোথাও কোথাও দ্বিগুণেরও বেশি ভাড়া আদায় করা হয়েছে। অথচ স্বাস্থ্যবিধির নামে শুধু মাস্কটাই পরেছে গণপরিবহনের শ্রমিকরা। অর্ধেক আসনে যাত্রী নিয়ে চলাচল করা, গণপরিবহন চালুর আগে এবং শেষ গন্তব্যে পৌছানো পর জীবাণুনাশক ছিটিয়ে গাড়ি জীবাণু মুক্ত করা। যাত্রীদের হাতে জীবাণুনাশক দেয়ার মতো নির্দেশনাগুলো কোনটাই মানেনি এই গণপরিবহন চালকরা।

দেখা গেছে বেশিরভাগ গণপরিবহন আসনভর্তি করে যাত্রী বোঝাইয়ের পাশাপাশি অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের নৈরাজ্য চালিয়েছে। সরকার গণপরিবহনের ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া আদায়ের নির্দেশনা দিলেও কোন কোন গনপরিবহনে ৩০০ থেকে ৫০০ শতাংশ পর্যন্ত বর্ধিত ভাড়া আদায় করা হয়েছে। আগামী দিন থেকেও যদি গণপরিবহন চালকরা একই পথে চলে তবে আবারও বাড়বে জনসাধারণের ভোগান্তি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *