জমি কেনার আগে জেনে নিন

জমি কেনার আগে জেনে নিন
ছবি: ইন্টারনেট

বাংলাদেশে বিনিয়োগ সম্পত্তি হিসেবে এক টুকরো জমি কেনার প্রচলন রয়েছে। যাইহোক, এক টুকরো জমিতে বিনিয়োগ করার সময় ভুল হতে পারে এমন সমস্ত বিষয় বিবেচনা করে, বিনিয়োগের সাথে সম্পর্কিত ঝুঁকি উপেক্ষা করা যায় না।

জমির সঠিক মূল্য নির্ধারণ থেকে শুরু করে, এবং নথি যাচাই করা থেকে শুরু করে প্রতিটি ধাপে সমস্ত আইনি সমস্যা, জমি কেনার আগে অনেক কিছু বিবেচনা করতে হয়। একজনকে বিশ্বাস করে আপনি প্রতারণার শিকার হতে পারেন এবং প্রক্রিয়ায় সবকিছু হারাতে পারেন। কিন্তু অন্যান্য জিনিস আছে যেমন অবস্থান, কাছাকাছি সুযোগ-সুবিধা এবং আকার যা জমির মূল্যকে প্রভাবিত করতে পারে। এই নিবন্ধটি জমির একটি টুকরা কেনার আগে আপনার ঠিক কী সন্ধান করা উচিত তা নিয়ে আলোচনা করা হবে।

জমির অবস্থান

আপনি কি নির্মাণ করতে পারেন তা নির্ভর করে ভূমি দ্বারা ঘেরা অবস্থান এবং রাস্তার উপর আপনি যে শহরেই আপনার বাড়ি তৈরি করার পরিকল্পনা করেন না কেন, আপনার বাড়ি তৈরির জন্য জমির উপযুক্ততা নির্ধারণের জন্য জমির অবস্থান সম্পর্কে সঠিক ধারণা থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ জমির অবস্থান গুরুত্বপূর্ণ। এটি জমির পরে জমি সম্পর্কে একক সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অনেক কিছুই নির্ভর করে অবস্থানের উপর যার মধ্যে বিল্ডিং এর আকার যা এটিতে তৈরি করা যেতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, একটি আবাসিক অবস্থান একটি বাণিজ্যিক ভবনের জন্য উপযুক্ত হবে না। তা ছাড়া, জমি দ্বারা রাস্তাটিও গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি নির্ধারণ করে আপনি কতটা কি নির্মাণ করতে পারেন।

কাছাকাছি উন্নয়ন

সু-উন্নত এবং চাহিদাপূর্ণ এলাকায় এক টুকরো জমি কিনতে যেমন বেশি খরচ হতে পারে, তেমনি অনুন্নত জমির অভাবের কারণে সেইসব এলাকায় জমি কেনা খুবই কঠিন হয়ে পড়ে। এই সমস্যাটি মোকাবেলা করার জন্য, অনেক লোক শহর থেকে দূরে সরে যায় যাতে তারা আরও বিকল্প পায়। আপনি যেভাবে চান সব উপলব্ধ জমি আপনার চাহিদা পূরণ করবে না।

সেজন্য জমি কেনার আগে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে তা হল জমিকে ঘিরে বর্তমানে কী ধরনের উন্নয়ন কাজ চলছে বা ভবিষ্যতে হবে। প্রশস্ত রাস্তা, বাজার, শপিং মল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ইত্যাদি আছে কিনা তা বিবেচনা করাও গুরুত্বপূর্ণ। অন্যথায়, এটি আপনার ভবিষ্যতের বিনিয়োগকে উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাবিত করতে পারে।

বাড়ি নির্মাণের জন্য জমির উপযুক্ততা

জমি কেনার আগে বিবেচনা করার বিষয়গুলি সম্পর্কে কথা বলতে গেলে, আপনাকে জমির অবস্থা বিবেচনা করতে হবে। জমির মাটি ভবন নির্মাণের জন্য উপযুক্ত কি না, জমি জলাবদ্ধতার শিকার হচ্ছে কি না, বা রক্ষণাবেক্ষণের জন্য আপনাকে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করতে হবে কিনা তা খুব গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে হবে। এছাড়া জমির কোনো অংশে কোনো সমস্যা আছে কি না এবং পানি-বিদ্যুৎ-গ্যাস লাইনের জন্য প্রয়োজনীয় চ্যানেলের ব্যবস্থা করা যাবে কি না তাও জানা জরুরি।

বৈধ কাগজপত্র

জমি কেনার সময় বিবেচনা করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির মধ্যে একটি আইনি নথি যাচাই করা জমি কেনার আগে এটি বিবেচনা করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির মধ্যে একটি। জমি কেনার আগে সব কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে তার সত্যতা যাচাই করতে হবে। কারণ একবার জমি বিক্রি হয়ে গেলে, নথি জাল হলে আপনার কিছুই করার থাকে না। আর তাই ভবিষ্যৎ বিভ্রান্তি এড়াতে জমি কেনার আগে জমির সমস্ত দলিল সঠিকভাবে প্রস্তুত করা হয়েছে কিনা, মালিকানার দলিল সঠিক আছে কি না, এবং প্রয়োজনে বিক্রয়ের অনুমতি আছে কিনা তা পরীক্ষা করে নিন।

আশেপাশে সুযোগ-সুবিধা

জমি কেনার জন্য বেছে নেওয়ার আগে আপনার আশেপাশে উপলব্ধ সুযোগ-সুবিধাগুলি সম্পর্কে ভাল ধারণা পাওয়া উচিত। বিশেষ করে যোগাযোগ ও পরিবহন সুবিধা সে ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ওইসব এলাকায় সঠিক পরিবহন সুবিধা না থাকলে মানুষের গন্তব্যে যাতায়াত করা কঠিন হবে। কি ঘটছে এবং এলাকার জন্য ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে একটি সামগ্রিক ধারণা থাকা গুরুত্বপূর্ণ যাতে ওই এলাকায় যাওয়ার পর আপনাকে কোনো ঝামেলার সম্মুখীন হতে না হয়। এছাড়াও, এলাকায় প্রয়োজনীয় ইউটিলিটি পরিষেবা যেমন বিদ্যুৎ, জল এবং গ্যাস আছে কি না সে সম্পর্কে ধারণা থাকা গুরুত্বপূর্ণ।

জমি কেনার আগে যে বিষয়গুলো বিবেচনা করতে হবে তার একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ মাত্র। কিন্তু এটা মনে রাখা জরুরী যে এই নিবন্ধে আলোচনা করা পয়েন্টগুলি সমস্ত কারণগুলির সম্পূর্ণ নয় যা আপনাকে জমি কেনার সময় দেখতে হবে। সুতরাং, আপনি যদি এক টুকরো জমিতে আপনার বাড়ি তৈরি করার পরিকল্পনা করেন, তাহলে আমরা এইমাত্র আলোচনা করা জিনিসগুলি দিয়ে শুরু করতে পারেন।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জমি কেনার আগে জেনে নিন

জমি কেনার আগে জেনে নিন
ছবি: ইন্টারনেট

বাংলাদেশে বিনিয়োগ সম্পত্তি হিসেবে এক টুকরো জমি কেনার প্রচলন রয়েছে। যাইহোক, এক টুকরো জমিতে বিনিয়োগ করার সময় ভুল হতে পারে এমন সমস্ত বিষয় বিবেচনা করে, বিনিয়োগের সাথে সম্পর্কিত ঝুঁকি উপেক্ষা করা যায় না।

জমির সঠিক মূল্য নির্ধারণ থেকে শুরু করে, এবং নথি যাচাই করা থেকে শুরু করে প্রতিটি ধাপে সমস্ত আইনি সমস্যা, জমি কেনার আগে অনেক কিছু বিবেচনা করতে হয়। একজনকে বিশ্বাস করে আপনি প্রতারণার শিকার হতে পারেন এবং প্রক্রিয়ায় সবকিছু হারাতে পারেন। কিন্তু অন্যান্য জিনিস আছে যেমন অবস্থান, কাছাকাছি সুযোগ-সুবিধা এবং আকার যা জমির মূল্যকে প্রভাবিত করতে পারে। এই নিবন্ধটি জমির একটি টুকরা কেনার আগে আপনার ঠিক কী সন্ধান করা উচিত তা নিয়ে আলোচনা করা হবে।

জমির অবস্থান

আপনি কি নির্মাণ করতে পারেন তা নির্ভর করে ভূমি দ্বারা ঘেরা অবস্থান এবং রাস্তার উপর আপনি যে শহরেই আপনার বাড়ি তৈরি করার পরিকল্পনা করেন না কেন, আপনার বাড়ি তৈরির জন্য জমির উপযুক্ততা নির্ধারণের জন্য জমির অবস্থান সম্পর্কে সঠিক ধারণা থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ জমির অবস্থান গুরুত্বপূর্ণ। এটি জমির পরে জমি সম্পর্কে একক সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অনেক কিছুই নির্ভর করে অবস্থানের উপর যার মধ্যে বিল্ডিং এর আকার যা এটিতে তৈরি করা যেতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, একটি আবাসিক অবস্থান একটি বাণিজ্যিক ভবনের জন্য উপযুক্ত হবে না। তা ছাড়া, জমি দ্বারা রাস্তাটিও গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি নির্ধারণ করে আপনি কতটা কি নির্মাণ করতে পারেন।

কাছাকাছি উন্নয়ন

সু-উন্নত এবং চাহিদাপূর্ণ এলাকায় এক টুকরো জমি কিনতে যেমন বেশি খরচ হতে পারে, তেমনি অনুন্নত জমির অভাবের কারণে সেইসব এলাকায় জমি কেনা খুবই কঠিন হয়ে পড়ে। এই সমস্যাটি মোকাবেলা করার জন্য, অনেক লোক শহর থেকে দূরে সরে যায় যাতে তারা আরও বিকল্প পায়। আপনি যেভাবে চান সব উপলব্ধ জমি আপনার চাহিদা পূরণ করবে না।

সেজন্য জমি কেনার আগে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে তা হল জমিকে ঘিরে বর্তমানে কী ধরনের উন্নয়ন কাজ চলছে বা ভবিষ্যতে হবে। প্রশস্ত রাস্তা, বাজার, শপিং মল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ইত্যাদি আছে কিনা তা বিবেচনা করাও গুরুত্বপূর্ণ। অন্যথায়, এটি আপনার ভবিষ্যতের বিনিয়োগকে উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাবিত করতে পারে।

বাড়ি নির্মাণের জন্য জমির উপযুক্ততা

জমি কেনার আগে বিবেচনা করার বিষয়গুলি সম্পর্কে কথা বলতে গেলে, আপনাকে জমির অবস্থা বিবেচনা করতে হবে। জমির মাটি ভবন নির্মাণের জন্য উপযুক্ত কি না, জমি জলাবদ্ধতার শিকার হচ্ছে কি না, বা রক্ষণাবেক্ষণের জন্য আপনাকে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করতে হবে কিনা তা খুব গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে হবে। এছাড়া জমির কোনো অংশে কোনো সমস্যা আছে কি না এবং পানি-বিদ্যুৎ-গ্যাস লাইনের জন্য প্রয়োজনীয় চ্যানেলের ব্যবস্থা করা যাবে কি না তাও জানা জরুরি।

বৈধ কাগজপত্র

জমি কেনার সময় বিবেচনা করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির মধ্যে একটি আইনি নথি যাচাই করা জমি কেনার আগে এটি বিবেচনা করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির মধ্যে একটি। জমি কেনার আগে সব কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে তার সত্যতা যাচাই করতে হবে। কারণ একবার জমি বিক্রি হয়ে গেলে, নথি জাল হলে আপনার কিছুই করার থাকে না। আর তাই ভবিষ্যৎ বিভ্রান্তি এড়াতে জমি কেনার আগে জমির সমস্ত দলিল সঠিকভাবে প্রস্তুত করা হয়েছে কিনা, মালিকানার দলিল সঠিক আছে কি না, এবং প্রয়োজনে বিক্রয়ের অনুমতি আছে কিনা তা পরীক্ষা করে নিন।

আশেপাশে সুযোগ-সুবিধা

জমি কেনার জন্য বেছে নেওয়ার আগে আপনার আশেপাশে উপলব্ধ সুযোগ-সুবিধাগুলি সম্পর্কে ভাল ধারণা পাওয়া উচিত। বিশেষ করে যোগাযোগ ও পরিবহন সুবিধা সে ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ওইসব এলাকায় সঠিক পরিবহন সুবিধা না থাকলে মানুষের গন্তব্যে যাতায়াত করা কঠিন হবে। কি ঘটছে এবং এলাকার জন্য ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে একটি সামগ্রিক ধারণা থাকা গুরুত্বপূর্ণ যাতে ওই এলাকায় যাওয়ার পর আপনাকে কোনো ঝামেলার সম্মুখীন হতে না হয়। এছাড়াও, এলাকায় প্রয়োজনীয় ইউটিলিটি পরিষেবা যেমন বিদ্যুৎ, জল এবং গ্যাস আছে কি না সে সম্পর্কে ধারণা থাকা গুরুত্বপূর্ণ।

জমি কেনার আগে যে বিষয়গুলো বিবেচনা করতে হবে তার একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ মাত্র। কিন্তু এটা মনে রাখা জরুরী যে এই নিবন্ধে আলোচনা করা পয়েন্টগুলি সমস্ত কারণগুলির সম্পূর্ণ নয় যা আপনাকে জমি কেনার সময় দেখতে হবে। সুতরাং, আপনি যদি এক টুকরো জমিতে আপনার বাড়ি তৈরি করার পরিকল্পনা করেন, তাহলে আমরা এইমাত্র আলোচনা করা জিনিসগুলি দিয়ে শুরু করতে পারেন।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Download