বাংলাদেশ: রবিবার ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: রবিবার ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

জাল টাকার মামলায় পাপিয়ার বিচার শুরু

জাল টাকা উদ্ধারের ঘটনায় নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়া এবং তার স্বামী মফিজুর রহমান সুমন সহ চার জনকে অভিযুক্ত করে বিচার শুরুর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

রোববার চার আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আগামী ১৩ অক্টোবরে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরুর দিন নির্ধারণ করে দিয়েছেন ঢাকা অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম হাসিবুল হক ।

এ মামলায় অভিযুক্ত অপর দুই আসামি হলেন- পাপিয়াদের সহযোগী সাব্বির খন্দকার ও শেখ শেখ তায়্যিবা নূর।

পাপিয়া ও সুমনের উপস্থিতিতে শুনানির সময় তাদের আইনজীবী শাখাওয়ায়াতউল্লাহ ভূইয়া আদালতে অব্যাহতির আবেদন করলেও তা খারিজ হয়ে যায়।

শাখাওয়ায়াতউল্লাহ ভূইয়া সাংবাদিকদের বলেন, জাল টাকা উদ্ধারের ঘটনায় বিমানবন্দর থানার বিশেষ ক্ষমতা আইনে যে মামলা হয়েছিল, তদন্ত কর্মকর্তা দুই ভাগে তার অভিযোগপত্র দিয়েছিলেন। এর মধ্যে জাল টাকা উদ্ধারের বিষয়ে এ অভিযোগপত্র দণ্ডবিধির ধারার। অপর অভিযোগপত্র দেওয়া হয় বিশেষ ক্ষমতা আইনে।দণ্ডবিধির ধারায় আজ অভিযোগ গঠন হল। বিশেষ ক্ষমতা আইনের অভিযোগপত্র এখনও শুনানিতে যায়নি।

নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমানকে ২০২০ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করা হয়। ওই সময় তাদের কাছ থেকে সাতটি পাসপোর্ট, দুই লাখ ১২ হাজার ২৭০ টাকা, ২৫ হাজার ৬০০ টাকার জাল নোট, ১১ হাজার ৪৮১ ডলার, শ্রীলঙ্কা ও ভারতের কিছু মুদ্রা এবং দুটি ডেবিট কার্ড জব্দ করা হয়।

পরে পাপিয়ার ফার্মগেটের ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, দুটি ম্যাগাজিন, ২০টি গুলি, পাঁচ বোতল বিদেশি মদ, ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা এবং বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ড উদ্ধারের কথা জানায় র‌্যাব। অভিযান চালানো হয় পাপিয়ার নরসিংদীর বাড়িতেও ।

গ্রেপ্তারের পর পাপিয়া ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে শেরেবাংলা নগর থানায় অস্ত্র ও মাদক আইনে দুটি মামলা করে র‌্যাব। বিমানবন্দর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা করা হয়। এছাড়া মুদ্রা পাচার প্রতিরোধ আইনে সিআইডি আরেকটি মামলা করে।

এর মধ্যে অস্ত্র আইনের মামলায় গতবছর ১২ অক্টোবর এই দম্পতির ২০ বছরের কারাদণ্ডের রায় হয়। আর মাদকের মামলায় এ বছর ১২ জানুয়ারি তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *