বাংলাদেশ: শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১১ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১১ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১১:৩০ পিএম

টিকটক কিশোর বয়সীদের জন্য কতটা ক্ষতির কারণ

টিকটকে দেশের কিশোর বয়সী ছেলে-মেয়েদের জনপ্রিয়তা এত বেড়েছে যে টিক টক নাম শুনলেই কিছু কিছু মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ে ফোনের স্কিনের ওপর। কিন্তু এই টিকটক শুধু কিশোর বয়সী নয় ক্ষতি করছে ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদেরও। একটা ছেলে বা মেয়ে টিকটক ভিডিও বানায়। তার ফ্যান ফলোয়ারের সংখ্যা হয়তোবা কয়েক হাজার আবার লাখও হতে পারে। এই টিকটকের নেশায় ছেলে মেয়েদের মনমানসিকতা সম্পূর্ণ স্মার্টফোনের দুনিয়ায় সীমাবদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। তারা দিনে দিনে মানসিক ও শারিরিক অসুস্থ হয়ে পড়ছে।

করোনাকালীন সময়ে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ছেলেমেয়েরা সময় কাটানোর জন্য এসব ব্যবহার করেছে এবং ধীরে ধীরে এসব মাধ্যমে তারা আসক্ত হয়ে পড়েছে। এমনও দেখা যায়, কেউ কেউ সারাদিন ভিডিও করা নিয়ে ব্যস্ত থাকে। যেখানে পারে সেখানেই ফোনের ক্যামেরা অন করে পাগলামিপনা শুরু করে দেয়। এমনকি রাস্তার মাঝে গাড়ি থামিয়েও ভিডিও করে। এতে লোকের কাছে তো দৃষ্টিকটু হচ্ছে আবার পরিবারেরও সম্মান নষ্ট করছে।

যে সময় একজন কিশোর-কিশোরীর সম্পূর্ণ মন লেখা-পড়ায় আবদ্ধ করা উচিত সেই সময় তারা পাগল হচ্ছে টিকটকে। যারা ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তারা এভাবে ঝরে যাচ্ছে শুধু মাত্র একটা অ্যাপসের খেলায়। সারাদিন এই রঙীন দুনিয়ায় পড়ে কিশোর- কিশোরিরা অল্প বয়সে ব্রেনের সমস্যা, চোখের সমস্যাসহ বড় বড় রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ছে। তাই সকল অভিভাবকদের তাদের সন্তানদের এই ক্ষতিকর টিকটক থেকে বের করে সুন্দর জীবনে ফিরিয়ে আনতে হবে অন্যদিকে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এসব অ্যাপস বন্ধের ব্যাপারে উদ্যোগ নিতে জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। তবেই টিকটকের এই ক্ষতিকর জগৎ থেকে কিশোর-কিশোরীদের ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *