বাংলাদেশ: মঙ্গলবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: মঙ্গলবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৪ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে উপচে পড়া মানুষের ভিড়

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখা যাচ্ছে। শনিবার(৩১ জুলাই) সরেজমিনে দেখা যায়, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের বিভিন্ন এলাকায় শ্রমিকরা ঢাকা মুখী হচ্ছে।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে শিল্প-কারখানা খোলার প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে তারা ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছে।

১ আগষ্ট শিল্প কারখানা খুলছে এই ঘোষণায় শিল্প কারখানার শ্রমিকরা হঠাৎ করে বিপাকে পড়ে গেছে। তাই তারা যে যেভাবে পারছে গ্রাম থেকে ঢাকামুখী হচ্ছে।

চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে গণপরিবহণ বন্ধ থাকায় মোটরসাইকেল, সিএনজি, মালবাহী ট্রাক এবং এ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা গাজীপুর আশুলিয়া আশপাশের শিল্প-অঞ্চলে ফিরতে শুরু করেছেন।

চলমান দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউনের মধ্যে শিল্প-কারখানা আওতাভুক্ত ছিল। এই লকডাউন ৫ই আগস্ট পর্যন্ত কার্যকর থাকবে জনপ্রশাসন মন্ত্রী এই কথাই বলেছিলেন।

গণপরিবহন বন্ধ,শিল্প কারখানা খুলে দেওয়া বিষয়টি উভয় সংকটের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। আসলে সাধারণ মানুষ কোন দিকে যাবে? একদিকে ঢাকায় ফিরে আসা অন্যদিকে সময় মত না পৌঁছালে চাকরি হারানোর ভয়।

রাস্তাঘাটে ঢাকামুখী মানুষের ভিড় দেখা গেলেও হাইওয়ে পুলিশের চেকপোস্টগুলোতে পুলিশি পাহারা তেমন একটা চোখে পড়েনি।

এদিকে পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, ঈদের ছুটিতে যারা গ্রামে গেছেন, তারা যদি ১ আগস্ট চাকরিতে যোগদান করতে না পারেন, তাহলে তাদের চাকরি যাবে না।

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন,কঠোর লকডাউনে কোনো শ্রমিক যদি কারখানায় ফিরতে না পারে, সেই শ্রমিকের যাতে চাকরি চলে না যায়,সেজন্য কারখানার মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *