বাংলাদেশ: রবিবার ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: রবিবার ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

পঞ্চম বিয়েতে সম্মতি না দেয়ায় স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম!

বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার চাওড়া ইউনিয়নের পাতাকাটা গ্রামের বাসিন্দা মোখলেস মাতব্বর। বিয়ে করেছেন ৪টি। এবারে ৫ম বিয়ে করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন তিনি। কিন্তু পঞ্চম বিয়েতে সম্মতি না দেয়ায় চতুর্থ স্ত্রী সালমা বেগমকে (৩৫) কুপিয়ে হাতের আঙ্গুল কেটে দিয়েছে বিয়ে পাগল স্বামী মোখলেস মাতব্বর।

আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সালমা বেগমকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে স্বজনরা। এই ঘটনায় মোখলেস মাতব্বরের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তার শ্বশুর মোনাসেফ সিকদার। বর্তমানে বিয়ে পাগলা মোখলেসকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, আমতলী উপজেলার পাতাকাটা গ্রামের হাতেম আলী মাতব্বরের ছেলে মোখলেস মাতব্বর। পটুয়াখালী জেলার বোতলবুনিয়া গ্রামের মোনাসেফ সিকদারের মেয়ে সালমাকে এ বছর জানুয়ারি মাসে বিয়ে করেন। এ নিয়ে তার স্ত্রী মোট চারজন। কিন্তু চারটি বিয়েতে সন্তুষ্ট নয় মোখলেস। তাই স্ত্রীদের অনুমতি নিয়ে তিনি পঞ্চম বিয়ে করতে চান। স্ত্রীর নিকট অনুমতি ও জমি বিক্রি করে টাকা দাবি করেন তিনি। কিন্তু চতুর্থ স্ত্রী সালমা সম্মতি ও টাকা দিতে অস্বীকার করেন। ফলে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন বিয়ে পাগল মোখলেস।

গত বৃহস্পতিবার রাতে স্ত্রী সালমা বেগম বেড়াতে যাওয়ায় তার সকল মালামাল চুরি করে বিক্রি করেন মোখলেস। বাড়ি ফিরে মালামাল না পেয়ে স্বামী মোখলেসকে এ বিষেয়ে জিজ্ঞেস করলে মঙ্গলবার রাতে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে মোখলেস স্ত্রীর ডান হাতের বৃদ্ধাগুলি ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে বিচ্ছিন্ন করে ফেলেন।

এ প্রসঙ্গে সালমা বেগম গনমাধ্যমকে বলেন, আমার স্বামী আবার বিয়া হরার লইগ্যা মোর কাছে লিখিত জমি বেইচ্যা টাহা চায়। মুই এইয়্যা দেতে রাজি না অওয়ায় চুরি হইর‌্যা ঘরের মালামাল লইয়্যা গ্যাছে। মুই এ্যাইয়্যার প্রতিবাদ করায় মোরে কোপাইয়্যা আতের আঙ্গুল কাইট্টা দেছে।

সালমার বাবা মোনাসেফ সিকদার গনমাধ্যমকে জানান, বিয়ের পর থেকেই মেয়েকে জামাতা মোখলেস নির্যাতন করে আসছে। মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে নীরবে সহ্য করেছি। এখন আর পারছি না। তাই বাধ্য হয়ে মামলা করেছি।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. আবদুল মুনায়েম সাদ গনমাধ্যমকে বলেন, সালমা বেগমের ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি কেটে ফেলেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার গনমাধ্যমকে বলেন, স্ত্রীকে মারধরের ঘটনায় মোখলেসের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *