বাংলাদেশ: শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১১ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: শনিবার ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১১ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১১:৩০ পিএম

পলিথিনে সয়লাব বানিয়াচং, ধ্বংসের মুখে পরিবেশ

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে পরিবেশ দূষণকারি নিষিদ্ধ পলিথিনে সয়লাব। উপজেলা সদর ছাড়াও যে কোন টং দোকানে মিলছে পলিথিন। কোন কিছু ক্রয় করলেই ক্রেতাকে দ্রব্যমূল্য পলিথিনে করে দিচ্ছেন ব্যসায়ীরা। এতে করে পরিবেশ দূষণকারি নিষিদ্ধ পলিথিন এর ব্যবহার যাচ্ছেতাইভাবে হচ্ছে।

প্রশাসন থেকেও পলিথিন এর ব্যাপারে তেমন কোন অভিযান নেই। ফলে ক্রেতা-বিক্রেতা বাধাহীনভাবেই পলিথিন শপিংব্যাগ হিসেবে ব্যবহার করছেন।
সরজমিন পরিদর্শন ও সূত্রে জানা যায়, আশির দশকের প্রথম দিকে বাজারে পলিথিন ব্যবহার শুরু হয়। পলিথিন পঁচেনা, গলেনা এমনকি মাটিতে শত শত বছর পর্যন্ত অক্ষত থাকতে পারে। ফলে মাটির উর্বরতা কমে যায়, বৃক্ষরাজির অনেক ক্ষতিসাধন করে।

বানিয়াচংয়ে বাজার সমূহে প্রকাশ্যেই এ নিষিদ্ধ পলিথিন বিক্রি হচ্ছে। উপজেলা সদরের বড় বাজার, গ্যানিংগঞ্জ বাজার, আদর্শ বাজার, ৫/৬নং বাজার, বাবু বাজার, সারং বাজার, পাড়াগাঁও বাজার ও জাতুকর্ণ পাড়া ঈদগাহ বাজারে পরিবেশ দূষণকারি পলিথিন কেনা-বেচা হচ্ছে। এমনকি ফার্মেসীতে ঔষধ পর্যন্ত দেওয়া হচ্ছে ওই নিষিদ্ধ পলিথিনে করেই। অথচ ২০০২ সালে পলিথিন উৎপাদন ও বিপিণন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়। আইনের ১৫ ধারায় বলা হয়েছে যদি কোন ব্যক্তি নিষিদ্ধ পলিথিন সামগ্রিক উৎপাদন, আমদানী বা বাজারজাত করে তাহলে ১০ বছরের কারাদ- বা ১০ লাখ টাকা জরিমানা এমনকি উভয় দ-ে দ-িত হতে পারে। আইনে থাকলেও নেই এর যথাযথ প্রয়োগ।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পরিবেশ আন্দোলনের সহসভাপতি (বাপা) কবি তাহমিনা বেগম গিনি দৈনিক জানান, পলিথিন আইনে নিষিদ্ধ, কিন্তু সর্বত্র এর ব্যবহার। ফলে পরিবেশের মারত্মক ক্ষতিসাধন হচ্ছে। খাল-বিল, নদী-নালার তলদেশে শুধু পলিথিন আর পলিথিন। এতে করে আমাদের জলজ ও বনজ সম্পদ নষ্ট হচ্ছে। আইনে যেহেতু পলিথিন উৎপাদন,বিপিণন ও ব্যবহার নিষিদ্ধ সেহেতু যথাযথ প্রয়োগ চাই।

বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ রানা জানান, বিদ্যমান আইনে পলিথিন উৎপাদন, বিপিণন ও ব্যবহার নিষিদ্ধ। যারা এ কাজে জড়িত চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *