বাংলাদেশ: শুক্রবার ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: শুক্রবার ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১০:৪৭ পিএম

প্রবাসীদের জন্য সুখবর দিলো প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী

করোনা সংক্রমণের পর থেকে বাংলাদেশি প্রবাসীরা বিদেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে করোনা টেস্ট নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েছেন। আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর মেশিনের অভাবে দেশের বাইরে যেতে পারছে না। সেই সমস্যা দূরীকরণে দ্রুতই বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর মেশিন বসতে যাচ্ছে সরকার।বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর মেশিন বসানোর বিষয়ে প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, দ্রুত সময়ে করোনা টেস্টের জন্য বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর মেশিন বসানো হবে।মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ইস্কাটনে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে ইমরান আহমদ বলেন, বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষার কাজ কারা করবে সে সিদ্ধান্ত আজকেই দেয়া হবে। এজন্য সাতটি প্রতিষ্ঠানকে প্রাথমিকভাবে নির্বাচন করা হয়েছে।প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী বলেন, বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষার কাজ এক বা একাধিক প্রতিষ্ঠান পেতে পারে। এটা ঠিক করবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ।

আরটি–পিসিআর পরীক্ষা করে প্রবাসীদের সনদ নিয়ে যাওয়ার শর্ত দিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। সেই কারণে দীর্ঘদিন ধরেই দেশের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরগুলোতে আরটি-পিসিআর পরীক্ষাগার স্থাপনের দাবি জানিয়ে আসছেন প্রবাসীরা। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ৬ সেপ্টেম্বর মন্ত্রিসভার বৈঠকে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ দেশের তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে করোনা শনাক্তে পিসিআর পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নির্দেশ দেয়া হয়। বাকি দুই বিমানবন্দর হলো চট্টগ্রামের শাহ আমানত ও সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর।এখনো সেই পরীক্ষার বন্দোবস্ত করতে না পারার কারণ ব্যাখ্যায় মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, সব দিক বিবেচনা করেই কাজটা আগানো হচ্ছে। এটি করতে গিয়েই বিলম্ব হয়েছে। আরটি–পিসিআর পরীক্ষা করতে দুই থেকে তিন ঘণ্টা লাগে আর দুই থেকে তিন ঘণ্টা লাগবে ইমিগ্রেশনে। প্রবাসীদের জন্য সবচেয়ে দ্রুত ব্যবস্থা করতে হবে।

মন্ত্রীর এই ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা আগে দেশের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরগুলোতে আরটি-পিসিআর পরীক্ষাগার স্থাপনের দাবিতে অনশন বসেন একদল প্রবাসী। বেলা ১১টার দিকে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের নিচে অবস্থান নেন শতাধিক প্রবাসী। তারা দাবির পক্ষে বিভিন্ন স্লোগান দেন।অনশনে অংশ নেওয়া প্রবাসীরা বলেন, মন্ত্রিসভার নির্দেশের পর সপ্তাহ পেরোলেও বিমানবন্দরে পরীক্ষাগার স্থাপনের কাজ শুরু হয়নি। এ কারণে অনেক প্রবাসী কর্মস্থলে ফিরতে না পেরে বিপদে পড়েছেন।কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া মিরপুরের বাসিন্দা সাজ্জাদ হোসেন জানান, দুবাইয়ে ১০ বছর ধরে কাজ করেন। তার প্রতিষ্ঠান বারবার তাকে কাজে যোগ দিতে বলছে। কিন্তু দেশের কোনো বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর পরীক্ষাগার না থাকায় যেতে পারছেন না। সাজ্জাদের মতো শতশত প্রবাসী আরটি-পিসিআর মেশিনের অভাবে বিদেশে যেতে পারছেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *