বাংলাদেশ: রবিবার ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: রবিবার ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

বর্ষায় যেসব জায়গায় ঘুরতে যাবেন

ঘোরার জন্য নির্দিষ্ট কোন ঋতু বা সময়ের প্রয়োজন হয় না। মন চাইলেই ঘুরে আসতে পারেন পছন্দের কোন জায়গা থেকে। তবে চলছে বর্ষার সিজন। প্রায় প্রতিদিন বৃষ্টি হওয়ায় বাইরে বের হতে পারছেন না! এদিকে মনটাও উদাস! ঘুরে আসতে পারেন পাহাড়ি অঞ্চল অথবা কোন সমুদ্র-সৈকত থেকে। বর্ষায় অপরুপ সাজে প্রকৃতি। তাই এসব জায়গা আপনার মনে প্রশান্তি আনবে সাথে কাটবে প্রায় প্রতিদিনের বৃষ্টির একঘেয়েমি।
বর্ষায় ঘুরে আসতে পারেন যেসব জায়গা থেকে-

সিলেট:
বাংলাদেশের বর্ষার রানী হিসেবে পরিচিত সিলেট। চা বাগান, মেঘালয়ের পাহাড় থেকে বেয়ে বাংলাদেশে প্রবাহিত নদী, সিলেটের জাফলং ভ্রমণ প্রেয়সীদের কাছে প্রিয় একটা জায়গা হিসেবে পরিচিত। সারা দেশে গরম পড়লেও সিলেটে বৃষ্টি পড়ে এবং আবহাওয়া গরম থাকে খুব কম। এছাড়া শহরের কাছেই রয়েছে বেশ কয়েকটি চা বাগান।

সুন্দরবন:
রয়েল বেঙ্গল টাইগারের জন্য পৃথিবী জুড়েই ভ্রমণ প্রিয়দের অন্যতম পছন্দের স্থান সুন্দরবন। বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের বিশাল উপকূলীয় এলাকা জুড়ে সুন্দরবনের অবস্থান। ঘুরতে যাওয়ার জন্য সুন্দরবন খুব জনপ্রিয় একটা জায়গা। পুরো সবুজে ঘেরা বন সময়টাকে সতেজ করে তোলে।

চট্রগ্রাম:
মিরসরাই-সীতাকুন্ডে বিস্তৃত বারৈয়াঢালা জাতীয় উদ্যানের ঝর্ণাগুলোর জন্য বর্ষার মৌসুমে চট্রগ্রাম হয়ে ওঠে ভ্রমনপিপাসুদের কেন্দ্রবিন্দু। খৈয়াছড়া, কমলদহ, সহস্রধারাসহ অনেকগুলো ঝর্ণা রয়েছে এ অঞ্চলে। এছাড়াও নতুন রূপে সেজেছে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত।

শ্রীমঙ্গল:
মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি হিসেবে দেশ-বিদেশের পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণীয় স্থান। শ্রীমঙ্গলে পাবেন লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, বাইক্কার বিলসহ নানান দর্শনীয় স্থান। বর্ষায় শ্রীমঙ্গল সাজে অপরূপ সাজে। এখানে গ্রান্ড সুলতান টি-রিসোর্ট, দুসাই রিসোর্টসহ বেশ কিছু আন্তর্জাতিক মানের রিসোর্টও গড়ে উঠেছে।

রাঙ্গামাটি:
পার্বত্য চট্টগ্রামে অবস্থিত রাঙ্গামাটি জেলা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অন্যতম লীলাভূমি। এ জেলার সাজেক ভ্যালি ভ্রমণপিপাসুদের কাছে খুবই আকর্ষণীয় স্থান। বর্ষাকালে এটি আরও অনেক বেশি আকর্ষণীয় হয়ে ওঠে। সাজেক ভ্যালিতে পাহাড়ের উপর তুলার মতো মেঘ রাশি ভেসে বেড়ায়।কাপ্তাই লেক রাঙ্গামাটির আরেকটি দর্শনীয় স্থান। ঝুলন্ত ব্রিজ অথবা তবলছড়ি ঘাট থেকে বোট ভাড়া করে কাপ্তাই লেক, শুভলং ঝরনা, বিজিবি ক্যাম্প, জুম রেস্তোরা, চা-বাগান ঘুরে দেখতে পারবেন।

কক্সবাজার:
গোটা পৃথিবী জুড়েই পর্যটকদের জন্য কক্সবাজার একটি জনপ্রিয় পর্যটনকেন্দ্র। কক্সবাজারে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি পর্যটক বেড়াতে যায়।
কক্সবাজার বর্ষাকালে অন্তত একবার যাওয়া উচিত কারণ সমুদ্রের বড় ঢেউ। আর সমুদ্রের বড় বড় ঢেউ দেখার জন্য বর্ষার সময়টাই উপযুক্ত। বৃষ্টিতে পাহাড়গুলো আরো সবুজ হয়ে যায়। এক পাশে পাহাড় আর অন্য পাশের সমুদ্র ধরে থাকে মেরিন ড্রাইভ! এ সৌন্দর্য আপনার মন ছুঁয়ে দিবেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *