বাংলাদেশ: সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

বাংলাদেশের ১০ টি দর্শনীয় স্থান

বাংলাদেশ প্রকৃতির রূপের ভান্ডার। এদেশের শস্য-শ্যামলা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে আমাদের নয়ন-মনের তৃষ্ণা মিটে। সোনালী ফসলে কৃষাণীর মন ভরে। পালাক্রমে আসা ছয়টি ঋতুতে প্রকৃতি সজ্জিত হয় ভিন্ন সাজে। এদেশে রয়েছে উঁচুনিচু পাহাড়, সুনীল সাগর, অবারিত মাঠ, যা এক অপূর্ব চিত্তহারী সৌন্দর্যের সৃষ্টি করেছে। নদীবিধৌত সরস ভূমি বলেই হয়তাে এখানে অনায়াসে অসংখ্য বৃক্ষ জন্মে যা সবুজের সমারােহ সৃষ্টি করে। এ বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি জেলায় রয়েছে অনেক দর্শনীয় স্থান। এসব দর্শনীয় স্থান শুধু দেশি পর্যটকরা যান না, বিদেশি পর্যটকরাও ভিড় জমান।

জানুন বাংলাদেশের ১০ টি দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে___

১. কক্সবাজার:
সেরা ৫০ টি দর্শনীয় স্থান বা পর্যটন কেন্দ্র ভিতরে প্রথম স্থানে রয়েছে কক্সবাজার। নীল জলরাশি আর শোঁ শোঁ গর্জনের মনোমুগ্ধকর সমুদ্র সৈকতের নাম কক্সবাজার। অপরূপ সুন্দর বিশ্বের বৃহত্তম সমুদ্র সৈকত এই কক্সবাজার।

২. সুন্দরবন:
সেরা ৫০টি দর্শনীয় স্থান বা পর্যটন কেন্দ্রের ভিতরে প্রথম স্থানে রয়েছে সুন্দরবন। বঙ্গোপসাগরের উপকূলবর্তী অঞ্চলে সুন্দরবন অবস্থিত। সুন্দরবন খুলনা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাট জেলা জুড়ে বিস্তৃত।

৩. রাঙ্গামাটি ঝুলন্ত ব্রিজ:
ঢাকা থেকে ৩০৮ কিলোমিটার দূরে রাঙ্গামাটি জেলা অবস্থিত। রাঙ্গামাটি জেলায় ভ্রমণের প্রধান আকর্ষণ হল রাঙ্গামাটি ঝুলন্ত ব্রিজ! ঝুলন্ত ব্রিজ টি কাপ্তাই হ্রদের উপর নির্মিত।

৪. সেন্টমার্টিন:
বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার অন্তর্গত টেকনাফ উপজেলার একটি ইউনিয়ন এই সেন্টমার্টিন। সেন্টমার্টিন বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ।

৫. কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত:
পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানার লতাচাপলি ইউনিয়নে কুয়াকাটা অবস্থিত। এটি বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের একটি সমুদ্র সৈকত।

৬. জাফলং:
জাফলং ভারতের মেঘালয় সীমান্ত ঘেঁষে খাসিয়া-জৈন্তা পাহাড়ের পাদদেশে অবস্থিত। এটা পর্যটকদের জন্য বিখ্যাত জায়গা। বাংলাদেশের সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় এই জাফলং অবস্থিত।

৭. সাজেক ভ্যালি:
বাংলাদেশের রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় সাজেক ভ্যালি অবস্থিত। বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ইউনিয়ন হিসেবে খ্যাত এই সাজেক। রাঙামাটি জেলার সর্বউত্তরের মিজোরাম সীমান্তে অবস্থিত এই সাজেক ভ্যালি।

৮. বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর:
২০ মার্চ, ১৯১৩ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত এবং ৭ আগস্ট, ১৯১৩ খ্রিস্টাব্দে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরের শাহবাগে অবস্থিত।

৯. ষাট গম্বুজ মসজিদ
বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলার দক্ষিণ-পশ্চিমে ষাট গম্বুজ মসজিদ অবস্থিত। এটি একটি প্রাচীন মসজিদ। ঢাকা থেকে ষাট গম্বুজ মসজিদ এর দূরত্ব প্রায় ২৬৬ কিলোমিটার।

১০. বাংলাদেশের জাতীয় স্মৃতিসৌধ:
এটি ঢাকার সাভারে অবস্থিত। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে ৩৫ কিলোমিটার উত্তর পশ্চিমে সাভার উপজেলায় ৪৪ হেক্টর জায়গা নিয়ে স্থাপন করা হয়েছে স্মৃতি সৌধ কমপ্লেক্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *