বাংলাদেশ: সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

  বাংলাদেশ: সোমবার ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি  

শেষ আপডেটঃ ১:৫২ পিএম

হারিয়ে যাচ্ছে হা ডু ডু খেলা

বাংলাদেশের গ্রাম বাংলার জনপ্রিয় খেলা হা-ডু-ডু। খুব পুরনো এই খেলা একসময়ের খুব জনপ্রিয় ছিল। হা-ডু-ডু বাংলাদেশের জাতীয় খেলা। এই খেলা আগে মাঠে কিংবা ধানকাটা বিলে এসবে আসর জমজমাট। কিন্তু প্রায়ই এই খেলা দিনে দিনে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। হা-ডু-ডু আমাদের দেশজ খেলা।
এই খেলার এই খেলার উৎপত্তিস্থল ফরিদপুর।এই খেলাটি যেখানে উৎপত্তি হোক না কেন বাংলাদেশে এমন কোন অঞ্চল নেই যেখানে এই খেলার প্রচলন ছিল না। বাংলাদেশি বিভিন্ন এলাকায় এই খেলাটি বিভিন্ন আঞ্চলিক নামে পরিচিত। যেমন- কাবাডি, কপাটি, কপাটি খেলা ইত্যাদি।

বাংলাদেশের জলবায়ুর পরিবেশগত বৈশিষ্ট্যের কারণে হা ডু ডু বেশি উপযোগী খেলা। এই খেলার জন্য খুব বেশি জায়গা দরকার হয়না। কোর্টের পরিমাপ ২১১৪ বর্গহাত। মাঝখানে মধ্য রেখা টেনে কোর্টকে সমান দুই ভাগে ভাগ করা হয়। খেলার জন্য কোন উপকরণের প্রয়োওপজন হয় না। খেলার প্রতি দলে ১২ জন খেলোয়াড় থাকলেও সাতজন খেলোয়াড় অংশ নেয়। বাকি ৫ জন অতিরিক্ত খেলা হিসেবে থাকে।

কিন্তু প্রযুক্তির কারণে এই খেলা দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে। প্রায় হারিয়ে গিয়েছে বলে ধরা যায়। আধুনিক খেলার কারণে এই খেলা জনপ্রিয়তা কমে গেছে। আধুনিক খেলা ইন্টারনেটের কারণে গ্রাম বাংলার খেলা গুলোন হারিয়ে যাচ্ছে। ইন্টারনেট গেম শিশুদের মস্তিষ্কের একটা জায়গা দখল করে নিয়েছে। শিশু এখন ইন্টারনেট গেম ছাড়া কোনো গ্রাম্য খেলা খেলতে চাই না। এর ফলে হারিয়ে যাচ্ছে আমাদের দেশের খেলা।

আজকাল জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কাবাডি খেলা হয়ে থাকে। তাতে ৮০ কেজির বেশি ওজনের খেলোয়ার কে খেলতে দেওয়া হয় না। খেলার সময় নির্ধারিত থাকে। খেলা চলে মোট ৪৫ মিনিট। প্রথম পূর্বে ২০ মিনিট খেলা চলার পর পাঁচ মিনিটের বিরতি। তারপর তৃতীয় পর্বে আরো বিশ মিনিট খেলার পর প্রতিযোগিতা শেষ হয়। মোট সাতজন লোক খেলা পরিচালনা করে ও বিচারের দায়িত্ব পালন করে। এদের মধ্যে থাকে একজন রেফারি, ২ জন আম্পায়ার,১ জন স্কোরার ২ জন সহকারীর স্কোরার। খেলার পয়েন্ট ভিত্তিতে জয় – পরাজয় নির্ধারিত হয়।

১৯৭৪ সালে বাংলাদেশের জাতীয় কাবাডি ফেডারেশন গঠিত হয়। ওই সময় জেলা বিভাগ পর্যায় ছাড়াও আনসার বিডিআর অান্তঃ স্কুল পর্যায়ে কাবাডি প্রতিযোগিতা শুরু হয়। বর্তমানে বাংলাদেশে ছাড়া ভারত মরিশাস পাকিস্তান আফগানিস্তান ও শ্রীলংকার কাবাডি খেলা অনু