চাকরি করার কথা ভাবছেন, তাহলে পড়ুন

চাকরি করার কথা ভাবছেন, তাহলে পড়ুন
ছবি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া।

লেখাপড়া শেষ করে আমরা চাকরির জন্য অনেক চেষ্টা করি। সরকারি বা বে-সরকারি একটি চাকরি হলেই চলবে। সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে বয়স ও নিয়োম কানুন থাকে। বেসরকারি চাকরির ক্ষেত্রে খুব বেশি সমস্যা হয় না। আসুন আজকে জেনে নেয়া যাক সরকারি ও বেসরকারি চাকরির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করবেন কি ভাবে-

সরকারি চাকরির জন্য যা প্রয়োজন:

সরকারি চাকরির জন্য প্রথমত আপনার লেখাপড়ার উপরে নির্ভর করবে। আপনি কোন ধরনের চাকরি করতে চান তার উপর সার্কুলার খুঁজে নিতে হবে। এরপর সেখানে আবেদন করতে হবে সরকারি নিয়মে। আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে পরবর্তী ম্যাসেজের জন্য। নির্দিষ্ট সময়ের পর লিখিত পরিক্ষা, মৌখিক পরিক্ষ এরপর চূড়ান্ত ফলাফল দেয়া হয়। আপনি যদি সব কিছুতে নিজেকে সঠিক ভাবে প্রমাণ করতে পারেন তাহলে চাকরির জন্য মননীত হবেন।

বেসরকারি চাকরির জন্য যা প্রয়োজন:

job 1

বেসরকারি চাকরির জন্য যা প্রয়োজন:

আমাদের সকলের আশা থাকে একটি সরকারি চাকরির কিন্তু ক্ষেত্র বিশেষ তা হয়ে উঠে না। আমাদের দেশের বেশিরভাগ শিক্ষিত ছেলে/মেয়েরা বেসরকারি ভাবে চাকরি করছে। কোম্পানি চাকরির জন্য নিজেকে তৈরি করবেন যেভাবে- প্রথমে আপনাকে বুঝতে হবে আপনি কোন কাজের উপর বেশি পারদর্শী। সে বিষয়ের উপর আপনি সংশ্লিষ্ট অফিসে সিভি পাঠাবেন। তারা আপনার বায়োডাটা দেখে আপনাকে ইন্টারভিউ-এর জন্য ডাকবে।

আপনাকে প্রথমত স্মার্ট থাকতে হবে। পোষাকের দিক থেকে সুন্দর পরিপাটি থাকবেন। সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারেন। দরজা থেকে অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করবেন। আপনার সামনে থাকা বস, বা স্যার যতক্ষণ বসতে না বলবে বসবেন না। অনুমতি নিয়ে কথা বলুন। এদিক সেদিক তাকাবেন না। বস, বা স্যারের কথা মনযোগ দিয়ে শুনুন। প্রয়োজনের বেশি কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। নিজের কাজ এবং আপনার অভিজ্ঞতার বিষয়ে সুন্দর করে উপস্থাপন করুন। দেখবেন সহজেই চাকরিটি আপনি পেয়ে যাবেন।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

চাকরি করার কথা ভাবছেন, তাহলে পড়ুন

চাকরি করার কথা ভাবছেন, তাহলে পড়ুন
ছবি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া।

লেখাপড়া শেষ করে আমরা চাকরির জন্য অনেক চেষ্টা করি। সরকারি বা বে-সরকারি একটি চাকরি হলেই চলবে। সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে বয়স ও নিয়োম কানুন থাকে। বেসরকারি চাকরির ক্ষেত্রে খুব বেশি সমস্যা হয় না। আসুন আজকে জেনে নেয়া যাক সরকারি ও বেসরকারি চাকরির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করবেন কি ভাবে-

সরকারি চাকরির জন্য যা প্রয়োজন:

সরকারি চাকরির জন্য প্রথমত আপনার লেখাপড়ার উপরে নির্ভর করবে। আপনি কোন ধরনের চাকরি করতে চান তার উপর সার্কুলার খুঁজে নিতে হবে। এরপর সেখানে আবেদন করতে হবে সরকারি নিয়মে। আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে পরবর্তী ম্যাসেজের জন্য। নির্দিষ্ট সময়ের পর লিখিত পরিক্ষা, মৌখিক পরিক্ষ এরপর চূড়ান্ত ফলাফল দেয়া হয়। আপনি যদি সব কিছুতে নিজেকে সঠিক ভাবে প্রমাণ করতে পারেন তাহলে চাকরির জন্য মননীত হবেন।

বেসরকারি চাকরির জন্য যা প্রয়োজন:

job 1

বেসরকারি চাকরির জন্য যা প্রয়োজন:

আমাদের সকলের আশা থাকে একটি সরকারি চাকরির কিন্তু ক্ষেত্র বিশেষ তা হয়ে উঠে না। আমাদের দেশের বেশিরভাগ শিক্ষিত ছেলে/মেয়েরা বেসরকারি ভাবে চাকরি করছে। কোম্পানি চাকরির জন্য নিজেকে তৈরি করবেন যেভাবে- প্রথমে আপনাকে বুঝতে হবে আপনি কোন কাজের উপর বেশি পারদর্শী। সে বিষয়ের উপর আপনি সংশ্লিষ্ট অফিসে সিভি পাঠাবেন। তারা আপনার বায়োডাটা দেখে আপনাকে ইন্টারভিউ-এর জন্য ডাকবে।

আপনাকে প্রথমত স্মার্ট থাকতে হবে। পোষাকের দিক থেকে সুন্দর পরিপাটি থাকবেন। সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারেন। দরজা থেকে অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করবেন। আপনার সামনে থাকা বস, বা স্যার যতক্ষণ বসতে না বলবে বসবেন না। অনুমতি নিয়ে কথা বলুন। এদিক সেদিক তাকাবেন না। বস, বা স্যারের কথা মনযোগ দিয়ে শুনুন। প্রয়োজনের বেশি কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। নিজের কাজ এবং আপনার অভিজ্ঞতার বিষয়ে সুন্দর করে উপস্থাপন করুন। দেখবেন সহজেই চাকরিটি আপনি পেয়ে যাবেন।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Download
ঠিকানা: মনসুরাবাদ হাউজিং, ঢাকা-১২০৭ এজেড মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।