এআই নিরাপদ ও বিশ্বাসযোগ্য, অভিমত জাতিসংঘের

ডেস্ক এডিটর এজেড নিউজ বিডি, ঢাকা
এআই নিরাপদ ও বিশ্বাসযোগ্য, অভিমত জাতিসংঘের

এআই বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা একটি গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার বলে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। জাতিসংঘ মনে করে, এটি নিয়ে পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে সাধারণ সভায় এই প্রস্তাব প্রথম এনেছিল যুক্তরাষ্ট্র। বাকি ১২৩টি দেশ তা মেনে নিয়েছে। এর মধ্যে চীনও আছে। মূলতঃ যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীনও এই প্রস্তাব সামনে এনেছিল।

সাধারণ সভার বৈঠকে বলা হয়, এআই নিরাপদ এবং বিশ্বাসযোগ্য। এটি নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। বরং এটিকে নিজেদের প্রয়োজনে ব্যবহার করতে হবে। জাতিসংঘের প্রায় সব দেশ এই সিদ্ধান্তের পক্ষে ভোট দিয়েছে। এই প্রথম এআই নিয়ে জাতিসংঘে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার এআই নিয়ে নানা সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইতোমধ্যে। অনেকেই মনে করেন, এআইয়ের অতিরিক্ত ব্যবহার জালিয়াতি বাড়িয়ে দেবে। পাশাপাশি এআই চাকরির বাজারেও সমস্যা তৈরি করবে।

যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে জাতিসংঘের সিদ্ধান্তে বলা হয়, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ঠিকঠাক ব্যবহার হলে এই বিষয়গুলো নিয়ে দুশ্চিন্তার কারণ নেই। বরং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স এক নতুন দুয়ার খুলে দেবে। এর সাহায্যে বহু অসাধ্য সাধন করা সম্ভব হবে।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এআই নিরাপদ ও বিশ্বাসযোগ্য, অভিমত জাতিসংঘের

এআই নিরাপদ ও বিশ্বাসযোগ্য, অভিমত জাতিসংঘের

এআই বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা একটি গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার বলে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। জাতিসংঘ মনে করে, এটি নিয়ে পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে সাধারণ সভায় এই প্রস্তাব প্রথম এনেছিল যুক্তরাষ্ট্র। বাকি ১২৩টি দেশ তা মেনে নিয়েছে। এর মধ্যে চীনও আছে। মূলতঃ যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীনও এই প্রস্তাব সামনে এনেছিল।

সাধারণ সভার বৈঠকে বলা হয়, এআই নিরাপদ এবং বিশ্বাসযোগ্য। এটি নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। বরং এটিকে নিজেদের প্রয়োজনে ব্যবহার করতে হবে। জাতিসংঘের প্রায় সব দেশ এই সিদ্ধান্তের পক্ষে ভোট দিয়েছে। এই প্রথম এআই নিয়ে জাতিসংঘে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার এআই নিয়ে নানা সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইতোমধ্যে। অনেকেই মনে করেন, এআইয়ের অতিরিক্ত ব্যবহার জালিয়াতি বাড়িয়ে দেবে। পাশাপাশি এআই চাকরির বাজারেও সমস্যা তৈরি করবে।

যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে জাতিসংঘের সিদ্ধান্তে বলা হয়, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ঠিকঠাক ব্যবহার হলে এই বিষয়গুলো নিয়ে দুশ্চিন্তার কারণ নেই। বরং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স এক নতুন দুয়ার খুলে দেবে। এর সাহায্যে বহু অসাধ্য সাধন করা সম্ভব হবে।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Download
ঠিকানা: মনসুরাবাদ হাউজিং, ঢাকা-১২০৭ এজেড মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।