রুশ বাহিনীর ২৬টি ড্রোন ধ্বংস করা হয়েছে, দাবি ইউক্রেনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক এজেড নিউজ বিডি, ঢাকা
রুশ বাহিনীর ২৬টি ড্রোন ধ্বংস করা হয়েছে, দাবি ইউক্রেনের
ছবি: সংগৃহীত

ইউক্রেনে আক্রমণ আরও জোরদার করেছে রাশিয়া। পাল্টা জবাব দিচ্ছে কিয়েভও। তাদের দাবি, তারা ২৬টি রুশ ড্রোন ধ্বংস করেছে।

পূর্ব, দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব ইউক্রেনে ইরানে তৈরি ২৮টি ড্রোন দিয়ে হামলা চালায় রাশিয়া। ইউক্রেন বলছে, তারা ২৬টি ড্রোন ধ্বংস করেছে।

এই ড্রোনগুলো দিয়ে ওডেসা, খারকিভ, নিপ্রোপেট্রোভস্ক, ঝাপোরিঝিয়া অঞ্চলে হামলা চালিয়েছিল রাশিয়া।

ঝাপোরিজ্ঝিয়ার গভর্নর জানান, রুশ ড্রোন হামলায় দুই নারী আহত হয়েছেন। ইউক্রেনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রাশিয়া ক্ষেপণাস্ত্রও ব্যবহার করেছে।

ইউক্রেন বিমান বাহিনীর প্রধান জানিয়েছেন, ২৮ মার্চ রাতে রাশিয়া তাদের দেশে মিসাইল হামলা চালায়। তারা কৃষ্ণসাগর থেকে বেশ কয়েকটি মিসাইল ছোড়ে।

এদিকে ইউক্রেনের সেনাকে ১০ হাজার কামানের গোলা দেবে জার্মানি। মেজর জেনারেল ক্রিশ্চিয়ান ফ্রয়েডিং বলেছেন, তিন ধাপে ইউক্রেনকে গোলাগুলো হস্তান্তর করা হবে। প্রথম পর্যায়ে তাদের দেওয়া হচ্ছে ১০ হাজার গোলা। দ্বিতীয় পর্যায়ে ১ লাখ ৮০ হাজার অস্ত্রের গুলি চেকোস্লোভাকিয়ার মাধ্যমে ইউক্রেনকে দেবে জার্মানি। এ বছরের শেষদিকে আরও এক লাখ গোলা-গুলি ইউক্রেনকে দেয়া হবে।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কুলেবা দুই দিনের সফরে ভারতে অবস্থান করছেন। শুক্রবার তিনি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠক করবেন। তিনি ভারতের উপ-জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার সঙ্গেও কথা বলবেন। রাজঘাটে গিয়ে মহাত্মা গান্ধীর প্রতি শ্রদ্ধাও জানাবেন কুলেবা।

গত সপ্তাহেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, “পোল্যান্ড, চেক প্রজাতন্ত্রসহ কোনো ন্যাটো দেশকে আক্রমণের পরিকল্পনা রাশিয়ার নেই। তবে তারা যদি ইউক্রেনকে এফ-১৬ বিমান দেয়, তাহলে রাশিয়া তা ধ্বংস করে দেবে।”

পুতিন বলেছেন, “ওরা এফ-১৬ পাওয়ার আশায় পাইলটদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। কিন্তু এফ-১৬ পেলেও যুদ্ধক্ষেত্রের পরিস্থিতি বদলাবে না।”

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

রুশ বাহিনীর ২৬টি ড্রোন ধ্বংস করা হয়েছে, দাবি ইউক্রেনের

রুশ বাহিনীর ২৬টি ড্রোন ধ্বংস করা হয়েছে, দাবি ইউক্রেনের
ছবি: সংগৃহীত

ইউক্রেনে আক্রমণ আরও জোরদার করেছে রাশিয়া। পাল্টা জবাব দিচ্ছে কিয়েভও। তাদের দাবি, তারা ২৬টি রুশ ড্রোন ধ্বংস করেছে।

পূর্ব, দক্ষিণ ও দক্ষিণপূর্ব ইউক্রেনে ইরানে তৈরি ২৮টি ড্রোন দিয়ে হামলা চালায় রাশিয়া। ইউক্রেন বলছে, তারা ২৬টি ড্রোন ধ্বংস করেছে।

এই ড্রোনগুলো দিয়ে ওডেসা, খারকিভ, নিপ্রোপেট্রোভস্ক, ঝাপোরিঝিয়া অঞ্চলে হামলা চালিয়েছিল রাশিয়া।

ঝাপোরিজ্ঝিয়ার গভর্নর জানান, রুশ ড্রোন হামলায় দুই নারী আহত হয়েছেন। ইউক্রেনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রাশিয়া ক্ষেপণাস্ত্রও ব্যবহার করেছে।

ইউক্রেন বিমান বাহিনীর প্রধান জানিয়েছেন, ২৮ মার্চ রাতে রাশিয়া তাদের দেশে মিসাইল হামলা চালায়। তারা কৃষ্ণসাগর থেকে বেশ কয়েকটি মিসাইল ছোড়ে।

এদিকে ইউক্রেনের সেনাকে ১০ হাজার কামানের গোলা দেবে জার্মানি। মেজর জেনারেল ক্রিশ্চিয়ান ফ্রয়েডিং বলেছেন, তিন ধাপে ইউক্রেনকে গোলাগুলো হস্তান্তর করা হবে। প্রথম পর্যায়ে তাদের দেওয়া হচ্ছে ১০ হাজার গোলা। দ্বিতীয় পর্যায়ে ১ লাখ ৮০ হাজার অস্ত্রের গুলি চেকোস্লোভাকিয়ার মাধ্যমে ইউক্রেনকে দেবে জার্মানি। এ বছরের শেষদিকে আরও এক লাখ গোলা-গুলি ইউক্রেনকে দেয়া হবে।

ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কুলেবা দুই দিনের সফরে ভারতে অবস্থান করছেন। শুক্রবার তিনি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠক করবেন। তিনি ভারতের উপ-জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার সঙ্গেও কথা বলবেন। রাজঘাটে গিয়ে মহাত্মা গান্ধীর প্রতি শ্রদ্ধাও জানাবেন কুলেবা।

গত সপ্তাহেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, “পোল্যান্ড, চেক প্রজাতন্ত্রসহ কোনো ন্যাটো দেশকে আক্রমণের পরিকল্পনা রাশিয়ার নেই। তবে তারা যদি ইউক্রেনকে এফ-১৬ বিমান দেয়, তাহলে রাশিয়া তা ধ্বংস করে দেবে।”

পুতিন বলেছেন, “ওরা এফ-১৬ পাওয়ার আশায় পাইলটদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। কিন্তু এফ-১৬ পেলেও যুদ্ধক্ষেত্রের পরিস্থিতি বদলাবে না।”

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Download
ঠিকানা: মনসুরাবাদ হাউজিং, ঢাকা-১২০৭ এজেড মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।