প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে দুই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি হ্যাটট্রিক ফারিহার

স্পোর্টস ডেস্ক এজেড নিউজ বিডি, ঢাকা
প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে দুই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি হ্যাটট্রিক ফারিহার
ছবি: সংগৃহীত

বিশ্ব ক্রিকেটের পূর্ণ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে প্রথম এবং সব মিলিয়ে তৃতীয় বোলার হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দুটি হ্যাটট্রিক করলেন ফারিহা ইসলাম। হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচের শেষ ওভারে এলিস পেরি, সোফি মলিনু ও বেথ মুনিকে প্যাভিলিয়নে ফিরিয়ে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন বাঁহাতি এই পেসার।

এর আগে, ২০২২ সালে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে অভিষেকে প্রথম হ্যাটট্রিক করেছিলেন তিনি। ফারিহা ছাড়া বাংলাদেশের হয়ে ফাহিমা খাতুনের হ্যাটট্রিকের অভিজ্ঞতা রয়েছে।

মিরপুরে তখন হ্যারিস ও ওয়ারেহামের শো চলছিল। সফরকারীরা যেভাবে খেলছিল, তাতে মনে হচ্ছিল দুইশ পেরিয়ে যাবে দলীয় পুঁজি। তবে ইনিংসের ১২তম ওভারে ওয়ারেহাম প্যাভিলিয়নে ফিরলেই পাল্টে যায় ম্যাচের চিত্র। পরের ওভারে ফাহিমার জোড়া আঘাতে অ্যাশলেই গার্ডনারের পর ফেরেন হ্যারিস।

তবে ইনিংসের মূল নাটকীয়তা তখনও বাকি। ইনিংসের শেষ ওভারে আক্রমণে আসেন ফারিহা। তার ওভারেই প্রথম বলেই বাউন্ডারি হাঁকান পেরি। পরের দুই বলে আসে ২ রান। চতুর্থ বলে ওয়াইড লং অফে স্বর্ণার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন পেরি। পরের বলে পয়েন্টে ধরা পড়েন মলিনু। শেষ বলে অ্যারাউন্ড দ্য লেগে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে বোল্ড হন মুনি। তাকে বোল্ড করেই হ্যাটট্রিক পূরণ করেন টাইগ্রেস পেসার।

নারীদের আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে জোড়া হ্যাটট্রিকের মালিক এখন তৃষ্ণা। এর আগে, উগান্ডার কনসুলেট আওয়েকো ও হংকংয়ের ক্যারি চ্যানের এই কীর্তি গড়েন।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে দুই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি হ্যাটট্রিক ফারিহার

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে দুই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি হ্যাটট্রিক ফারিহার
ছবি: সংগৃহীত

বিশ্ব ক্রিকেটের পূর্ণ সদস্য দেশগুলোর মধ্যে প্রথম এবং সব মিলিয়ে তৃতীয় বোলার হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দুটি হ্যাটট্রিক করলেন ফারিহা ইসলাম। হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচের শেষ ওভারে এলিস পেরি, সোফি মলিনু ও বেথ মুনিকে প্যাভিলিয়নে ফিরিয়ে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন বাঁহাতি এই পেসার।

এর আগে, ২০২২ সালে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে অভিষেকে প্রথম হ্যাটট্রিক করেছিলেন তিনি। ফারিহা ছাড়া বাংলাদেশের হয়ে ফাহিমা খাতুনের হ্যাটট্রিকের অভিজ্ঞতা রয়েছে।

মিরপুরে তখন হ্যারিস ও ওয়ারেহামের শো চলছিল। সফরকারীরা যেভাবে খেলছিল, তাতে মনে হচ্ছিল দুইশ পেরিয়ে যাবে দলীয় পুঁজি। তবে ইনিংসের ১২তম ওভারে ওয়ারেহাম প্যাভিলিয়নে ফিরলেই পাল্টে যায় ম্যাচের চিত্র। পরের ওভারে ফাহিমার জোড়া আঘাতে অ্যাশলেই গার্ডনারের পর ফেরেন হ্যারিস।

তবে ইনিংসের মূল নাটকীয়তা তখনও বাকি। ইনিংসের শেষ ওভারে আক্রমণে আসেন ফারিহা। তার ওভারেই প্রথম বলেই বাউন্ডারি হাঁকান পেরি। পরের দুই বলে আসে ২ রান। চতুর্থ বলে ওয়াইড লং অফে স্বর্ণার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন পেরি। পরের বলে পয়েন্টে ধরা পড়েন মলিনু। শেষ বলে অ্যারাউন্ড দ্য লেগে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে বোল্ড হন মুনি। তাকে বোল্ড করেই হ্যাটট্রিক পূরণ করেন টাইগ্রেস পেসার।

নারীদের আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে জোড়া হ্যাটট্রিকের মালিক এখন তৃষ্ণা। এর আগে, উগান্ডার কনসুলেট আওয়েকো ও হংকংয়ের ক্যারি চ্যানের এই কীর্তি গড়েন।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Download
ঠিকানা: মনসুরাবাদ হাউজিং, ঢাকা-১২০৭ এজেড মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।