রান পাহাড়ে চড়ে কলকাতার বড় জয়

স্পোর্টস ডেস্ক এজেড নিউজ বিডি, ঢাকা
রান পাহাড়ে চড়ে কলকাতার বড় জয়
ছবি: সংগৃহীত

আইপিএলের এবারের আসরে তিন ম্যাচে মাঠে নেমে তিনটিতেই জয় তুলে নিলো কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। বিশাখাপত্তনমে বুধবার রাতে রান পাহাড় গড়ে দিল্লি ক্যাপিটালসকে তারা হারিয়েছে ১০৬ রানের বড় ব্যবধানে।

এদিন টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ঝড় তুলেন সুনীল নারিন। ৩৯ বলে ৭টি চার ও সমান সংখ্যক ছক্কায় খেলেন ক্যারিয়ার সেরা ৮৫ রানের ইনিংস। তার দেখানো পথে হাঁটেন অঙ্গকৃষ্ণ রঘুবংশীও। ২৭ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় খেলেন ৫৪ রানের ঝড়ো ইনিংস। আন্দ্রে রাসেলও কম যাননি। ১৯ বলে ৪টি চার ও ৩ ছক্কায় ৪১ রানের ইনিংস খেলেন। তাতে কলকাতা নাইট রাইডার্স ৭ উইকেট হারিয়ে ২৭২ রানের বিশাল সংগ্রহ পায়। আন্দ্রে রাসেল শেষ ওভারের প্রথম বলে আউট না হলে গেল বুধবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর করা ২৭৭ রানের রেকর্ডও ভেঙে যেত নিশ্চিত।

রান পাহাড় তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ছন্দপতন ঘটে দিল্লির। আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় মিচেল স্টার্ক ও অভিষেক হওয়া বৈভব অরোরার বোলিং তোপে ৩৩ রান তুলতেই হারিয়ে বসে ৪ উইকেট। পৃথ্বি’শ ১০, মিচেল মার্শ ০, অভিষেক পোরেল ০ ও ডেভিড ওয়ার্নার ১৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন।

সেখান থেকে ঋভষ পন্ত ও ট্রিস্টান স্টাবস ৯৩ রানের জুটি গড়ে বিপর্যয় সামাল দেন। কিন্তু পন্ত ২৫ বলে ৪টি চার ও ৫ ছক্কায় ৫৫ রান ও স্টাবস ৩২ বলে ৪টি চার ও ৪ ছক্কায় ৫৪ রান করে আউট হওয়ার পর শেষ হয়ে যায় দিল্লির লড়াই। শেষ পর্যন্ত ১৭.২ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রানের বেশি করতে পারেনি দিল্লি। ১০৬ রানের জয়ে তিন ম্যাচ থেকে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে অবস্থান নেয় কেকেআর। অন্যদিকে চতুর্থ ম্যাচে তৃতীয় হারকে সঙ্গী করে টেবিলের নবম স্থানে নেমে গেছে দিল্লি।

বল হাতে অভিষিক্ত বৈভব অরোরা ৪ ওভারে ২৭ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নেন। বরুণ চক্রবর্তী ৪ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে নেন আরও ৩টি উইকেট। আর স্টার্ক ৩ ওভারে ২৫ রান দিয়ে নেন ২টি উইকেট।

তার আগে দিল্লির হয়ে অ্যানরিখ নকরিয়া ৪ ওভারে ৫৯ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ৩টি উইকেট। ইশান্ত শর্মা ৩ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে নেন ২টি উইকেট। ব্যাট হাতে ৮৫ রান ও বল হাতে ১ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন নারিন।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

রান পাহাড়ে চড়ে কলকাতার বড় জয়

রান পাহাড়ে চড়ে কলকাতার বড় জয়
ছবি: সংগৃহীত

আইপিএলের এবারের আসরে তিন ম্যাচে মাঠে নেমে তিনটিতেই জয় তুলে নিলো কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। বিশাখাপত্তনমে বুধবার রাতে রান পাহাড় গড়ে দিল্লি ক্যাপিটালসকে তারা হারিয়েছে ১০৬ রানের বড় ব্যবধানে।

এদিন টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ঝড় তুলেন সুনীল নারিন। ৩৯ বলে ৭টি চার ও সমান সংখ্যক ছক্কায় খেলেন ক্যারিয়ার সেরা ৮৫ রানের ইনিংস। তার দেখানো পথে হাঁটেন অঙ্গকৃষ্ণ রঘুবংশীও। ২৭ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় খেলেন ৫৪ রানের ঝড়ো ইনিংস। আন্দ্রে রাসেলও কম যাননি। ১৯ বলে ৪টি চার ও ৩ ছক্কায় ৪১ রানের ইনিংস খেলেন। তাতে কলকাতা নাইট রাইডার্স ৭ উইকেট হারিয়ে ২৭২ রানের বিশাল সংগ্রহ পায়। আন্দ্রে রাসেল শেষ ওভারের প্রথম বলে আউট না হলে গেল বুধবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর করা ২৭৭ রানের রেকর্ডও ভেঙে যেত নিশ্চিত।

রান পাহাড় তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ছন্দপতন ঘটে দিল্লির। আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় মিচেল স্টার্ক ও অভিষেক হওয়া বৈভব অরোরার বোলিং তোপে ৩৩ রান তুলতেই হারিয়ে বসে ৪ উইকেট। পৃথ্বি’শ ১০, মিচেল মার্শ ০, অভিষেক পোরেল ০ ও ডেভিড ওয়ার্নার ১৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন।

সেখান থেকে ঋভষ পন্ত ও ট্রিস্টান স্টাবস ৯৩ রানের জুটি গড়ে বিপর্যয় সামাল দেন। কিন্তু পন্ত ২৫ বলে ৪টি চার ও ৫ ছক্কায় ৫৫ রান ও স্টাবস ৩২ বলে ৪টি চার ও ৪ ছক্কায় ৫৪ রান করে আউট হওয়ার পর শেষ হয়ে যায় দিল্লির লড়াই। শেষ পর্যন্ত ১৭.২ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রানের বেশি করতে পারেনি দিল্লি। ১০৬ রানের জয়ে তিন ম্যাচ থেকে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে অবস্থান নেয় কেকেআর। অন্যদিকে চতুর্থ ম্যাচে তৃতীয় হারকে সঙ্গী করে টেবিলের নবম স্থানে নেমে গেছে দিল্লি।

বল হাতে অভিষিক্ত বৈভব অরোরা ৪ ওভারে ২৭ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নেন। বরুণ চক্রবর্তী ৪ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে নেন আরও ৩টি উইকেট। আর স্টার্ক ৩ ওভারে ২৫ রান দিয়ে নেন ২টি উইকেট।

তার আগে দিল্লির হয়ে অ্যানরিখ নকরিয়া ৪ ওভারে ৫৯ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ৩টি উইকেট। ইশান্ত শর্মা ৩ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে নেন ২টি উইকেট। ব্যাট হাতে ৮৫ রান ও বল হাতে ১ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন নারিন।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Download
ঠিকানা: মনসুরাবাদ হাউজিং, ঢাকা-১২০৭ এজেড মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।