ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার সর্বোচ্চ সতর্কতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক এজেড নিউজ বিডি, ঢাকা
ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার সর্বোচ্চ সতর্কতা
ছবি: সংগৃহীত

মস্কোতে গুলির ঘটনার পর এবার সন্ত্রাসী হামলার সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে ফরাসি সরকার।

রবিবার (২৪ মার্চ) জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁর বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী গ্যাব্রিয়েল আতাল এ সতর্কতা জারির কথা জানান।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এক্সে দেওয়া এক পোস্টে গ্যাব্রিয়েল আতাল বলেন, ‘‘মস্কোয় হামলার ঘটনায় ইসলামিক স্টেটের (আইএস) দায় স্বীকারকে কেন্দ্র করে এবং আমাদের দেশের ওপর হামলার হুমকি বিবেচনায় নিয়ে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’’

ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার হুমকিসংক্রান্ত সতর্কব্যবস্থার তিনটি মাত্রা আছে। ফ্রান্সে অথবা বিদেশে কোনো হামলা হলে বা হামলা অত্যাসন্ন বলে আশঙ্কা করা হলে সর্বোচ্চ মাত্রার সতর্কসংকেতটি সক্রিয় করা হয়।

সর্বোচ্চ মাত্রার সতর্কতা জারির আওতায় গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও স্থাপনাগুলোয় নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

যেমন- রেলস্টেশন, বিমানবন্দর, ধর্মীয় স্থান ও বিভিন্ন জনসমাগমের জায়গায় সশস্ত্র বাহিনীর টহল জোরদার করা হয়।

স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যায় রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় কনসার্ট হলে মুখোশ পরা বন্দুকধারীরা হামলা করে। বন্দুকধারীরা কনসার্ট হলে ঢুকে স্বয়ংক্রিয় রাইফেল দিয়ে ভিড়ের মধ্যে এলোপাতাড়ি গুলি চালায়।

রুশ সংবাদমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে বিবিসি বলছে, হামলাকারীরা গুলি করার পাশাপাশি বিস্ফোরক ব্যবহার করেছে। এতে ক্রোকাস সিটি হলে আগুন ধরে যায়। ধসে পড়েছে হলের ছাদ।

এর আগে, রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা সংস্থা জানিয়েছিল, এ হামলায় অন্তত ৪০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। পরে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাড়ায় ১১৫।

এ ঘটনাকে ‘‘রক্তাক্ত সন্ত্রাসী হামলা’’ বলে উল্লেখ করেছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার সর্বোচ্চ সতর্কতা

ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার সর্বোচ্চ সতর্কতা
ছবি: সংগৃহীত

মস্কোতে গুলির ঘটনার পর এবার সন্ত্রাসী হামলার সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে ফরাসি সরকার।

রবিবার (২৪ মার্চ) জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা ও প্রতিরক্ষা কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁর বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী গ্যাব্রিয়েল আতাল এ সতর্কতা জারির কথা জানান।

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এক্সে দেওয়া এক পোস্টে গ্যাব্রিয়েল আতাল বলেন, ‘‘মস্কোয় হামলার ঘটনায় ইসলামিক স্টেটের (আইএস) দায় স্বীকারকে কেন্দ্র করে এবং আমাদের দেশের ওপর হামলার হুমকি বিবেচনায় নিয়ে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’’

ফ্রান্সে সন্ত্রাসী হামলার হুমকিসংক্রান্ত সতর্কব্যবস্থার তিনটি মাত্রা আছে। ফ্রান্সে অথবা বিদেশে কোনো হামলা হলে বা হামলা অত্যাসন্ন বলে আশঙ্কা করা হলে সর্বোচ্চ মাত্রার সতর্কসংকেতটি সক্রিয় করা হয়।

সর্বোচ্চ মাত্রার সতর্কতা জারির আওতায় গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও স্থাপনাগুলোয় নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

যেমন- রেলস্টেশন, বিমানবন্দর, ধর্মীয় স্থান ও বিভিন্ন জনসমাগমের জায়গায় সশস্ত্র বাহিনীর টহল জোরদার করা হয়।

স্থানীয় সময় শুক্রবার সন্ধ্যায় রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় কনসার্ট হলে মুখোশ পরা বন্দুকধারীরা হামলা করে। বন্দুকধারীরা কনসার্ট হলে ঢুকে স্বয়ংক্রিয় রাইফেল দিয়ে ভিড়ের মধ্যে এলোপাতাড়ি গুলি চালায়।

রুশ সংবাদমাধ্যমগুলোর বরাত দিয়ে বিবিসি বলছে, হামলাকারীরা গুলি করার পাশাপাশি বিস্ফোরক ব্যবহার করেছে। এতে ক্রোকাস সিটি হলে আগুন ধরে যায়। ধসে পড়েছে হলের ছাদ।

এর আগে, রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা সংস্থা জানিয়েছিল, এ হামলায় অন্তত ৪০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। পরে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাড়ায় ১১৫।

এ ঘটনাকে ‘‘রক্তাক্ত সন্ত্রাসী হামলা’’ বলে উল্লেখ করেছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Download
ঠিকানা: মনসুরাবাদ হাউজিং, ঢাকা-১২০৭ এজেড মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।