১৫ হাজার টিকিটের জন্য ঘণ্টায় ২ কোটিবার চেষ্টা

ন্যাশনাল ডেস্ক এজেড নিউজ বিডি, ঢাকা
১৫ হাজার টিকিটের জন্য ঘণ্টায় ২ কোটিবার চেষ্টা
ছবি: সংগৃহীত

আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে চলছে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি। এরই প্রেক্ষিতে রেলের ষষ্ঠ দিনের টিকিট বিক্রি শুরু হয় শুক্রবার সকাল ৮টায়। অগ্রিম টিকিটপ্রত্যাশীরা এক ঘণ্টায় রেলের সার্ভারে (হিট) চেষ্টা করেছেন ২ কোটি ২০ লাখ বার।

এদিন টিকিট বিক্রি শুরুর প্রথম ৩০ মিনিটে রেকর্ড এক কোটি ৩০ লাখ বার ওয়েবসাইটে চেষ্টা (হিট) চালানো হয়েছে। প্রথম এক ঘণ্টায় দুই কোটি বিশ লাখ বার হিট হয়েছে।

জানা গেছে, শুক্রবার পশ্চিমাঞ্চলের (রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের জন্য) ১৫ হাজার ৮৯০টি টিকিট বিক্রির জন্য ছাড়া হয়। প্রথম ১৫ মিনিটে ৭ হাজার ১৯৪টি টিকিট বিক্রি হয়ে যায়। আধা ঘণ্টায় বিক্রি হয় ১২ হাজার ৭৮৩টি টিকিট। সকাল সাড়ে ১০টার মধ্যে নির্ধারিত প্রায় সব টিকিট বিক্রি হয়ে যায়।

আজ বিকেল ২টা থেকে রেলের পূর্বাঞ্চলের টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের টিকিট বিক্রি হবে। এ অঞ্চলের জন্য টিকিট ছাড়া হবে ১৬ হাজার ৬৯৬টি।

রেলের কর্মকর্তারা বলছেন, আজ পূর্বাঞ্চলের টিকিটের চাহিদাও খুব বেশি থাকবে। আগামীকাল সর্বশেষ দিন ৯ এপ্রিলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে।

এদিকে, উল্টো চিত্র দেখা গেছে রাজধানীর গাবতলী, কল্যাণপুর, পান্থপথ, সায়েদাবাদের বাসস্ট্যান্ডগুলোতে। ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হলেও এখনো জমে ওঠেনি। নেই আগাম টিকিটপ্রত্যাশীদের ভিড়।

বাস কোম্পানি ও টিকিট বিক্রেতারা বলছেন, অধিকাংশ ঈদযাত্রী অনলাইন থেকে টিকিট কাটছেন। ঘরে বসে টিকিট কাটতে পারায় এবার কাউন্টারে ভিড় করছেন না কেউ। তবে ২০ রোজার পর যাত্রীচাহিদা বাড়বে বলে আশা করছেন তারা।

এদিকে, যাত্রীদের ঝামেলামুক্ত ও আরামদায়ক ঈদযাত্রা নিশ্চিত করতে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলে দাবি বাস ও রেল কর্তৃপক্ষের।

জানা গেছে, আগের ঈদগুলোতে ৫ দিনের টিকিট বিক্রি করলেও এবারই প্রথম ৭ দিনের টিকিট বিক্রি করছে রেলওয়ে। ঈদ উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের এই ট্রেন যাত্রার টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে ২৪ মার্চ। যাত্রীদের সুবিধার্থে শতভাগ টিকিট এবার অনলাইনে বিক্রি করা হচ্ছে।

৪ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৫ মার্চ; ৫ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৬ মার্চ এবং ৬ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হয়েছে ২৭ মার্চের টিকিট। ঈদের আগে আগামীকাল ৩০ মার্চ বিক্রি করা হবে ৯ এপ্রিলের টিকিট।

এ ছাড়া ঈদের চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ১০, ১১ ও ১২ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হবে। যাত্রী সাধারণের অনুরোধে ২৫ শতাংশ টিকিট যাত্রা শুরুর আগে প্রারম্ভিক স্টেশন থেকে পাওয়া যাবে।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

১৫ হাজার টিকিটের জন্য ঘণ্টায় ২ কোটিবার চেষ্টা

১৫ হাজার টিকিটের জন্য ঘণ্টায় ২ কোটিবার চেষ্টা
ছবি: সংগৃহীত

আসন্ন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে চলছে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি। এরই প্রেক্ষিতে রেলের ষষ্ঠ দিনের টিকিট বিক্রি শুরু হয় শুক্রবার সকাল ৮টায়। অগ্রিম টিকিটপ্রত্যাশীরা এক ঘণ্টায় রেলের সার্ভারে (হিট) চেষ্টা করেছেন ২ কোটি ২০ লাখ বার।

এদিন টিকিট বিক্রি শুরুর প্রথম ৩০ মিনিটে রেকর্ড এক কোটি ৩০ লাখ বার ওয়েবসাইটে চেষ্টা (হিট) চালানো হয়েছে। প্রথম এক ঘণ্টায় দুই কোটি বিশ লাখ বার হিট হয়েছে।

জানা গেছে, শুক্রবার পশ্চিমাঞ্চলের (রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের জন্য) ১৫ হাজার ৮৯০টি টিকিট বিক্রির জন্য ছাড়া হয়। প্রথম ১৫ মিনিটে ৭ হাজার ১৯৪টি টিকিট বিক্রি হয়ে যায়। আধা ঘণ্টায় বিক্রি হয় ১২ হাজার ৭৮৩টি টিকিট। সকাল সাড়ে ১০টার মধ্যে নির্ধারিত প্রায় সব টিকিট বিক্রি হয়ে যায়।

আজ বিকেল ২টা থেকে রেলের পূর্বাঞ্চলের টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের টিকিট বিক্রি হবে। এ অঞ্চলের জন্য টিকিট ছাড়া হবে ১৬ হাজার ৬৯৬টি।

রেলের কর্মকর্তারা বলছেন, আজ পূর্বাঞ্চলের টিকিটের চাহিদাও খুব বেশি থাকবে। আগামীকাল সর্বশেষ দিন ৯ এপ্রিলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হবে।

এদিকে, উল্টো চিত্র দেখা গেছে রাজধানীর গাবতলী, কল্যাণপুর, পান্থপথ, সায়েদাবাদের বাসস্ট্যান্ডগুলোতে। ঈদের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হলেও এখনো জমে ওঠেনি। নেই আগাম টিকিটপ্রত্যাশীদের ভিড়।

বাস কোম্পানি ও টিকিট বিক্রেতারা বলছেন, অধিকাংশ ঈদযাত্রী অনলাইন থেকে টিকিট কাটছেন। ঘরে বসে টিকিট কাটতে পারায় এবার কাউন্টারে ভিড় করছেন না কেউ। তবে ২০ রোজার পর যাত্রীচাহিদা বাড়বে বলে আশা করছেন তারা।

এদিকে, যাত্রীদের ঝামেলামুক্ত ও আরামদায়ক ঈদযাত্রা নিশ্চিত করতে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলে দাবি বাস ও রেল কর্তৃপক্ষের।

জানা গেছে, আগের ঈদগুলোতে ৫ দিনের টিকিট বিক্রি করলেও এবারই প্রথম ৭ দিনের টিকিট বিক্রি করছে রেলওয়ে। ঈদ উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের এই ট্রেন যাত্রার টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে ২৪ মার্চ। যাত্রীদের সুবিধার্থে শতভাগ টিকিট এবার অনলাইনে বিক্রি করা হচ্ছে।

৪ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৫ মার্চ; ৫ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৬ মার্চ এবং ৬ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হয়েছে ২৭ মার্চের টিকিট। ঈদের আগে আগামীকাল ৩০ মার্চ বিক্রি করা হবে ৯ এপ্রিলের টিকিট।

এ ছাড়া ঈদের চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে ১০, ১১ ও ১২ এপ্রিলের টিকিট বিক্রি করা হবে। যাত্রী সাধারণের অনুরোধে ২৫ শতাংশ টিকিট যাত্রা শুরুর আগে প্রারম্ভিক স্টেশন থেকে পাওয়া যাবে।

এজেড নিউজ বিডি ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Download
ঠিকানা: মনসুরাবাদ হাউজিং, ঢাকা-১২০৭ এজেড মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।